You are here
Home > Don't Miss > রান্নাবান্না ও রূপচর্চা > মুখের ব্রণ-র দাগ দূর করে মুখের তারুণ্য ফেরানোর কয়েকটি ঘরোয়া কৌশল

মুখের ব্রণ-র দাগ দূর করে মুখের তারুণ্য ফেরানোর কয়েকটি ঘরোয়া কৌশল

মুখের ব্রণ -র দাগ দূর করুন

কথায় বলে আগে দর্শণ, তারপরে তার গুণবিচার। কিন্তু সেই মুখশ্রীতেই যদি ব্রণর দাগ ছেয়ে থাকে, তাহলে সৌন্দর্য্য কীভাবে প্রকাশিত হবে। মুখের দাগ নিয়ে সেই জন্য আমরা কতই না দুশ্চিন্তা করি সবসময়। তাই আজকে মুখের সৌন্দর্য্য কে ফিরিয়ে আনার জন্য ব্রণ দূর করার উপায় আলোচনা করবো তোমাদের সাথে।

মুখের ব্রণ-র দাগ দূর করার ঘরোয়া উপায় বা কৌশল:

১. কর্পূরের দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার এই উপায় বা কৌশলটি খুবই কার্যকরী।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে কর্পূর ও নারকেল হামেশাই ব্যবহার করে থাকি। প্রথমে তিনটি কর্পূর নেবেন। কর্পূরকে প্রথমে গুঁড়ো করে নিয়ে তার সাথে ২ চা চামচ নারকেল তেলকে মিশিয়ে নেবেন। মেশানোর পর ৩-৫ মিনিট ধরে কটন ব্রাশ দিয়ে ব্রণর দাগের ওপর সরাসরি মিশ্রণ টা বোলাতে থাকবেন। এরপর ১৫ মিনিট মিশ্রণ কে মুখে মেখে অপেক্ষা করার পর পরিষ্কার ঠান্ডা জলে মুখমন্ডল নরম হাতে ঘষে ঘষে ধুয়ে ফেলুন।

এটি যদি আপনারা সপ্তাহে ৩-৫ দিন করতে পারেন, তাহলে ১ সপ্তাহ পরে নিজেরাই উপলব্ধি করবেন ব্রণর দাগ গায়েব হলো কিনা।

২. ব্যসনের দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার দ্বিতীয় উপায় বা কৌশল।

ব্যসন, লেবু,মধু বা হলুদের গুঁড়ো বা কখনো অ্যালোভেরা আমরা প্রায় দৈনন্দিন জীবনে প্রত্যহ ব্যবহার করি। কিন্তু এই উপাদানগুলির মাধ্যমেই ফেসপ্যাক বানিয়ে চমৎকার ফলাফল হয়।

একটি বাটিতে ২ চামচ ব্যসন, ১½ চামচ মধু,১ চিমটে হলুদ, সামান্য পাতিলেবুর রস এবং ১ বড়ো চা চামচ অ্যালোভেরা জেল দিয়ে ভালো করে ফেসপ্যাক তৈরি করুন। এরপর এই মিশ্রণটি ব্যবহার করার আগে মুখমন্ডল ভালো করে ধুয়ে নেবেন। এই সময় ফেসওয়াশ ব্যবহার করতে পারেন। মুখ ঠিক মতো মুছে শুকিয়ে গেলে এই ফেসপ্যাকটি মুখে তুলির সাহায্য ৫ মিনিট ধরে লাগিয়ে নিন। আর এই প্যাকটি ব্যবহার করার সময় কথা বলা কিংবা হাসা এগুলো থেকে বিরত থাকতে হবে, কারণ মুখে রিঙ্কল পড়ে যেতে পারে। সম্পূর্ণ ভাবে লাগানো হয়ে গেল ২০ মিনিট মুখে মেখে অপেক্ষা করতে হবে। ফেসপ্যাক মুখে মাখার পর চোখ খালি রাখলাম চলবে না। শশার টুকরো চোখের ওপর দিতে হবে। ২০মিনিট হয়ে গেলে মুখের ওপর প্যাকটি কিছুটা ড্রাই হয়ে যাবে, তখন নরম হাতে মুখে মাসাজ করতে হবে বিশেষ করে যে যে অংশে ব্রনর দাগ বেশি চোখে লাগছে।

মাসাজের পর নরম ভেজা কাপড় দিয়ে ভালো মতো মুছে নেবেন। মোছার পর পরিষ্কার ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। এরপরে মুখে তুলোতে ঢেলে গোলাপ জল ব্যবহার করতে হবে।এটি দেওয়ার পর ২-৩ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এরপর মুখমন্ডলে সান প্রোটেক্টেড ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। এই পদ্ধতি চলাকালীন রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে অ্যালোভেরা জেল মুখে মেখে শুয়ে পড়তে হবে, সকালে ঘুম থেকে উঠে মুখ ধোবেন। এটি ১ সপ্তাহে পরপর ৭ দিন ব্যবহার করলে হাতেনাতে ফল নিজেই বুঝতে পারবেন।

৩. দুধের সরের দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার তৃতীয় উপায় বা কৌশল।

দুধ তো আমরা খাই, দুধের সরের ফেসপ্যাক অনায়াসে আপনার মুখের ব্রনর দাগ উড়িয়ে দেবার মোক্ষম ওষুধ।

১ বড়ো চামচ দুধের সর, ১ চা চামচ ব্যসন, ১ চিমটি হলুদের গুঁড়ো। সকল উপাদান গুলিকে ভালো করে মিশিয়ে মিহি করে নিতে হবে। এবার এই ফেসপ্যাকটি ত্বকে ব্যবহারের পর ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এরপর মিশ্রণটি শুষ্ক হয়ে এলে হাল্কা হাতে মাসাজ করতে হবে। এবার ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে ৪ দিন এটি ব্যবহার করলেই বুঝতে পারবেন সমস্যার সমাধান হলো কিনা।

আরও পড়ুন – এই ৭ টি বিউটি টিপস যা রাতারাতি আপনার ত্বককে উজ্জ্বল করে দেবে

৪.লেবুর দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার চতুর্থ উপায় বা কৌশল।

লেবু,আলু, গ্লিসারিনের দ্বারা কার্যকরী ফেসপ্যাক বানানো সম্ভব।
প্রথমে একটি আলু নিতে হবে।আলুটিকে গ্ৰেটারের সহায়তায় গ্ৰেট করে নিতে হবে। এরপর একটি ছাঁকনি র সাহায্যে আলুর রস নিয়ে নিতে হবে। একটি লেবুর খোসা নিয়ে নিতে হবে গ্ৰেটারে গ্ৰেট করে। আলুর রস, লেবুর খোসার সাথে বাটিতে দিতে হবে ১ চামচ গ্লিসারিন,১ চামচ মধু। এই উপাদানগুলোকে ভালো করে মিহি করে নিতে হবে। মিশ্রণটি তৈরি হয়ে গেলে তুলোর সাহায্যে মাসাজের ভঙ্গীমায় ৫ মিনিট ধরে ত্বকে লাগাতে হবে। এরপর গরম জলে মুখ ধুয়ে ফ্যানের তলে মুখ শুকিয়ে নেবেন।রোজ না হলেও এটি সপ্তাহে ৩ দিন করলে উপকার পাবেন।

৫. ডিসপিরিনের দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার ৫ম উপায় বা কৌশল।

ব্রণর ওপর চিরকালীন কার্যকরী জিনিস হলো স্যালিসিলিক এসিড। এই এসিড ডিসপিরিন বা অ্যাসপিরিন ট্যাবলেটে পাওয়া যায়।
প্রথমে ৪টি ডিসপিরিন ট্যাবলেট নিতে হবে, তাতে একচামচ জল ঢেলে ট্যাবলেটকে গুলে যেতে দিতে হবে। এরপর এটিকে ব্রণর চামড়াতে ভালো করে মাখিয়ে দিতে হবে। এটি মাখার পর ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। তারপর ঠাণ্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। এই প্যাকটি ব্যবহারের পর মুখমন্ডল শুষ্কো হয়ে যেতে পারে, যাতে না হয় সেজন্য মধু ও অ্যালোভেরা জেল হাতের তালু তে ঢেলে মুখে ভালো করে মেখে ১০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এবার মুখ ধোয়ার পর কোনো সফট্ ক্রীম মুখে মেখে নিতে হবে। সপ্তাহে এই পদ্ধতি ৪ বার ব্যবহার করলেই অনুভব করতে পারবেন।

৬. পেঁপের দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার ষষ্ঠ উপায় বা কৌশল।

ব্রণর দাগ দূর করতে, ত্বককে উজ্জ্বল রাখতে পেঁপের জুড়ি মেলা ভার। ঘরোয়া পদ্ধতিতে পেঁপের ফেসপ্যাক তৈরি করে মুখে মাখলে যাদুকরী ফল হতেই হবে।

১ টুকরো একটু বড়ো খোসা ছাড়ানো পাকা পেঁপে,২চামচ টক দই (পরিষ্কার কাপড়ের চিপে জল ঝরিয়ে দই কাপড় থেকে নিয়ে নিতে হবে) , হাফ চামচ পাতিলেবুর রস,সকল উপাদান একত্রে মিশিয়ে মিহি পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। এরপর ত্বকে দেওয়ার পর ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর ত্বকে প্যাকটি শুষ্ক হয়ে এলে সামান্য জলের ছিটে দিয়ে গোলাকার ভাবে নরম হাতে মাসাজ করুন। এরপর পরিষ্কার ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

এটি সপ্তাহে ৫ বার ব্যবহার করার পর নিজেরাই বুঝতে পারবেন।

৭. আলুর দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার ৭ম উপায় বা কৌশল।

আলু, ময়দা, হলুদ রোজ আমাদের কাজে লাগে। কিন্তু আমরা কেউ জানিনা এগুলোর সাহায্যে তৈরি ফেসপ্যাক কতটা ভেষজ উপকারী।

আলুর রস, ১ চা চামচ ময়দা, ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো, একটা কাঁচা লেবুর খোসা, ১ চামচ মধু দিয়ে চটজলদি মিশ্রণ বানান। এরপর মুখে হাতে করে মিশ্রণটি লাগিয়ে নিন। ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। প্রথমে গরম জল ও পরে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

পরপর ৪ দিন করলেই উন্নতি নিজেরাই বুঝতে পারবেন।

৮.টুথপেস্টের দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার ৮ম উপায় বা কৌশল।

টুথপেস্টে ছাড়া মানুষের দিন চলে না‌। ঘুম থেকে উঠে সবার আগে প্রয়োজন এটিকে। কিন্তু ত্বকের জন্যেও এটি যে উপকারী সেটা কি জানেন!

একটি পাত্রে প্রথমে ১ চামচ সাদা রঙের টুথপেস্ট নিয়ে নিতে হবে।এটার সাথে ১ চামচ লেবুর রস ও ১ চামচ চালের গুঁড়ো দিতে হবে। এরপর মিশ্রণটি তৈরি হলে হাত দিয়ে মুখমন্ডলে একটু পুরু করে স্ক্রাবটা লাগিয়ে নিতে হবে। পুরো ত্বকে লাগানোর পর ৫ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। এর পরবর্তী ২-৩ মিনিট গোলাকার ভাবে মাসাজ করতে হবে। এরপর ঠাণ্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন হবে।

যেহেতু টুথপেস্ট ত্বকে দিলে একটু জ্বলে সেই জন্য মুখ ধুয়ে ফেলার পর মুখে নারকেল তেল বা অলিভ অয়েল বা যে কোনো সফট্ লোসান লাগাতে পারেন। এই স্ক্রাবটা সপ্তাহে ২ বার করলে ফল পাবেন।

৯.টমেটোর দ্বারা:-

ব্রণ-র দাগ দূর করার ৯ম উপায় বা কৌশল।

আমরা টমেটো খেতে খুব ভালোবাসি। টমেটো মানেই প্রথমে টমেটো চাটনির কথাই মনে আসে। কিন্তু টমেটোর অনেক গুনাগুন আছে যেমন রূপচর্চার ক্ষেত্রে, বিশেষ করে মুখের যেকোনো দাগ তোলার বিষয়ে এটি অন্যতম।

প্রথমে টমেটো কে অর্ধেক করে নিন,তার ওপরে দিন ১ চামচ চিনি ও ১ চামচ মধু। তারপর টমেটো কে নিয়ে গোলাকার ভাবে গালে স্ক্রাব করতে থাকুন অন্তত পক্ষে ৩-৪ মিনিট। এরপরে টমেটোর রসের সাথে লেবুর রস মিশিয়ে চোখের তলে মেখে রাখুন ১০-১৫ মিনিট। সপ্তাহে ২-৩ বার করতে হবে ৩ সপ্তাহ পর্যন্ত। এভাবে মুখের ব্রণ -র দাগ দূর করুন ও মুখ করে তুলুন উজ্জ্বল।

তাহলে আজকের পদ্ধতি গুলি আপনারা অবশ্যই প্রয়োগ করে জানাবেন কতটা উপকার পেলেন। মুখের সৌন্দর্য্য হলো আসল সৌন্দর্য।মুখ ভালো দেখতে লাগলেন আমাদের মন- মেজাজও ভালো থাকে।

Leave a Reply

Top