You are here
Home > Don't Miss > সম্পর্ক > চরিত্রহীন নারী চেনার উপায় | শারীরিক সম্পর্কে অভ্যস্ত নারীদের চেনার উপায়

চরিত্রহীন নারী চেনার উপায় | শারীরিক সম্পর্কে অভ্যস্ত নারীদের চেনার উপায়

চরিত্রহীন (দুশ্চরিত্রা ) নারী চেনার উপায় এবং শারীরিক সম্পর্কে অভ্যস্ত নারীদের চেনার উপায়

এই পৃথিবীতে নারীর নানারূপ আছে । কখনো সে মহিয়সী মাতা, কখনো সুগৃহিনী, কখনো বীরঙ্গনা কন্যা। নারী হলেন পুরুষের কাছে এক বিশ্বস্ত স্থান। কথাতেই বলে সংসার সুখের হয় রমনীর গুনে । আর এই ধরনের বিশ্বস্ত নারী  গৃহিণীর জন্য খুঁজতে গিয়ে মাথার ঘাম পায়ে ফেলতে হয়। জীবনকে সুন্দর করে তোলার জন্য চরিত্রবান নারীর প্রয়োজনীয়তা আবশ্যিক। তাই যারা জীবনসঙ্গী খোঁজার জন্য তৈরি হয়েছেন তাদের উদ্দেশ্যে বলছি আমার এই আর্টিকেলটি পড়ুন এবং খুব সহজেই জেনে যান চরিত্রহীন (দুশ্চরিত্রা ) নারী চেনার উপায় কি আছে। শারীরিক সম্পর্কে অভ্যস্ত নারীদের চেনার উপায় নিম্নরূপ-

নির্লজ্জ ভাব:

লজ্জা হল নারীর ভূষণ। চরিত্রহীন নারীরা ভদ্র হলেও তাদের মধ্যে নির্লজ্জ ভাব দেখা যায়। অসৎ নারীরা পুরুষদের চোখের দিকে দৃষ্টি রেখে কথা বলতে দ্বিধাবোধ করে না। তারা তাদের দৃষ্টি নিক্ষেপ করে পুরুষদের আকর্ষণ করে। পুরুষের সর্বনাশের কারণ হল এই নারীর দৃষ্টি। এই সমস্ত মহিলাদের থেকে সাবধান হওয়া উচিত তারা কখনোই সম্পূর্ণ বিশ্বস্ত হয়ে উঠতে পারে না। তাই যেসব নারী নির্লজ্জ হয় তাদের এই নির্লজ্জ ভাবকেই আপনি চরিত্রহীন (দুশ্চরিত্রা) নারী চেনার উপায় হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

বারংবার একান্তে দেখা করার ফন্দি:

 চরিত্রহীন নারীরা প্রথমে পুরুষদের সাথে বন্ধুত্ব করে। তারপর তারা পুরুষদের সাথে এতই আলাপচারিতা করতে থাকে যে পুরুষটি ওই নারীটিকে প্রকৃত ভালো নারী হিসেবে মনে করতে থাকে। তারপর ওই চরিত্রহীন নারীটি পুরুষটির সাথে বারংবার দেখা করবার ফন্দি আঁটে। এই দেখা করাটা কোনো স্থানে একান্তে দেখা করার কথা বোঝানো হয়েছে। আপনার সাথে যদি এমন ধরনের কোনো নারীর পরিচয় হয় তাহলে তার থেকে সতর্ক হন। এই সমস্ত নারীদের একদম বিশ্বাস করবেন না। কোনো নারী পুরুষের সঙ্গে একান্তে দেখা করার   ফন্দি আঁটা হল  শারীরিক সম্পর্কে অভ্যস্ত নারীদের চেনার অন্যতম উপায়।

কথা বলবার ছুঁত খোঁজে:

অসৎ চরিত্রহীন নারীরা পুরুষদের সাথে কথা বলবার সুযোগ খোঁজে। আপনার সাথে বারবার কোন মহিলা যদি কথা বলার ছুঁত খোঁজে তাহলে জানবেন মেয়েটি দুশ্চরিত্র হতে পারে। চরিত্রহীন (দুশ্চরিত্রা) নারী সকলকে চেনার উপায় হিসাবে আপনি গ্রহণ করতে পারেন কথা বলার ছুঁত খোঁজার উদাহরণটিকে। যদি এক্ষেত্রে ছেলেটি মেয়েটিকে এড়িয়ে যায় তাহলে মেয়েটি ছেলেটির বাড়ি পর্যন্ত চলে আসে। আগে থেকে ওই মেয়েটি ছেলেটির পরিবারের মানুষজনদের কাছেও ভাল মানুষী দেখিয়ে তাদের বিশ্বাস অর্জন করে নিয়েছে। এরপরে সে ছেলেটিকে নানা ভাবে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করে।

ব্ল্যাকমেইল করার উদ্যোগী হয়:

অসৎ নারীর সাথে পুরুষটির পরিচয় ঘটার পরে সে আপ্রাণ চেষ্টা করে পুরুষটির বিশ্বাস অর্জন করার। পুরুষটি যখন ওই নারীটিকে বিশ্বাস করতে শুরু করে তখন ওই নারীটি পুরুষটির পারিবারিক বিষয়ে খোঁজখবর নিতে শুরু করে এবং তাকে ব্ল্যাকমেল পর্যন্ত করতে থাকে। এমন নারীদের কখনোই বিশ্বাস করা উচিত নয়।

মদ্যপানের আগ্রহী মেয়েদের কে বর্জন করুন:

যে সমস্ত মেয়েরা মদ্যপানের প্রতি আসক্ত হয় সেই সমস্ত মেয়েদের থেকে দূরে থাকা উচিত। কারন ঐ সমস্ত মেয়েদের চরিত্র ভালো হয় না। তাদের কুমারীত্ব বলে কিছুই থাকেনা।

কথার প্রসঙ্গে যৌনতা নিয়ে আলোচনা:

চরিত্রহীন নারীরা ছলনাময়ী হয়। পুরুষদের সঙ্গে কথা বলা প্রসঙ্গে তারা বারবার যৌন সম্পর্ক নিয়ে আলোচনা করতে চায়। সেই নানা যৌন সম্পর্ক নিয়ে কথা বলার প্রসঙ্গে পুরুষকে উত্তেজিত করতে চায়। পুরুষ যদি উত্তেজনার বশে কোনো কিছু করে ফেলে তাহলে ওই পুরুষটি বিপদে পড়তে পারে কারণ ছলনাময়ী নারীটি অবলীলায় পুরুষটির ওপর দোষ চাপিয়ে দেয়। যৌন সম্পর্ক নিয়ে কথা বলার  জন্য ইচ্ছা প্রকাশ করা হল শারীরিক সম্পর্কে অভ্যস্ত নারীদের চেনার  আর একটি উপায়।

নিজের রূপের প্রতি আকৃষ্ট করে:

চরিত্রহীন নারীরা পুরুষদের সাথে যখন কথা বলে তখন   নিজের চুল নাড়াতে থাকে। চুল নাড়িয়ে কথা বলার সাথে সে তার নিজের রূপের প্রতি পুরুষকে আকৃষ্ট করাতে চায়। নিজের রূপের প্রতি আকৃষ্ট করার মনোভাবাপন্ন নারীদের আপনি  চরিত্রহীন (দুশ্চরিত্রা) বলে বিবেচিত করতে পারেন কারণ এই ধরনের  মানসিকতাকে  হল ভ্রষ্টা নারী চেনার উপায় হিসেবে গ্রহণ করা যেতে পারে

গভীর রাত্রে মেসেজ বা ফোন করা:

ছলনাময়ী নারীরা পুরুষদের সাথে শারীরিক সম্পর্ক তৈরি করার আগে তারা পুরুষদের সাথে নানা ভাবে কথা বলতে চায়। পুরুষদের বিশ্বাস অর্জন করার পর তারা গভীর রাত্রে ফোন বা মেসেজ এর মাধ্যমে নানা আলাপচারিতা করে। এই ফোন বা মেসেজ এর মাধ্যমে গভীর রাতে কথা বলার সাথে নিজের প্রতি পুরুষদের আকৃষ্ট করে ওই নারী। তারপর পুরুষদের বিপদে ফেলে দেয় । তাই এই সব নারীর থেকে সাবধানে থাকুন।

আরও পড়ুন – মেয়ে পটানোর সহজ উপায়

জীবনসঙ্গী খোঁজার জন্য যারা উদ্যোগী হয়েছেন তারা অবশ্যই উপকৃত হবেন  এই আর্টিকেলটির দ্বারা। এই আর্টিকেলটি আপনাদের  শারীরিক সম্পর্কে অভ্যস্ত নারীদের চেনার উপায়  জানতে সাহায্য করবে। আমার এই আর্টিকেলটি পড়ে যদি আপনারা উপকৃত হন তাহলে আমি আপনাদের কাছে বাধিত হইব। আপনাদের যদি আর্টিকেলটি ভালো লাগে তাহলে লাইক শেয়ার এবং কমেন্ট দিতে ভুলবেন না।

Leave a Reply

Top