You are here
Home > Don't Miss > রান্নাবান্না ও রূপচর্চা > ফেসিয়াল করার নিয়ম: রূপমন্ত্রের চাবিকাঠি এখন আপনার হাতে

ফেসিয়াল করার নিয়ম: রূপমন্ত্রের চাবিকাঠি এখন আপনার হাতে

ফেসিয়াল করার নিয়ম

কথায় বলে সুন্দর মুখের জয় সর্বত্র। পৃথিবীর কোন মেয়েই না চায় নিজেকে সুন্দর করে তুলতে, ঝকঝকে, মোলায়েম, জৌলুসপূর্ণ, দাগবিহীন ত্বক সকলের একান্ত কাম্য। আর ত্বকের জৌলুস ধরে রাখার চাবিকাঠি হল ফেসিয়াল। কিন্তু বর্তমান যা পরিস্থিতি তাতে পার্লারে গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়া একপ্রকার দায় হয়ে ঠেকেছে। কিন্তু ফেসিয়াল করা কিন্তু ত্বকের জন্য খুব জরুরি। তাই ফেসিয়াল করার নিয়ম জানা জরুরি। খাদ্য যেমন আমাদের পুষ্টি যোগায় তেমনই ফেসিয়াল আমাদের ত্বকের পুষ্টি যোগায় । তাই সেটা থেকে বিরত থাকা নৈবঃ নৈবঃ চ।

এখন কিন্তু বাড়িতে বসে রকমারি ফেসিয়াল সম্ভব। অবাক হলেন তো যে কিভাবে সম্ভব ফেসিয়াল করা তাও পার্লায়ে না গিয়ে? হ্যাঁ সম্ভব আর সেই সম্ভবনার পন্থা নিয়ে আমরা হাজির হয়েছি আপনাদের সামনে। কিভাবে আপনি আপনার সৌন্দর্য ধরে রাখার জন্য বাড়িতে বসে ফেসিয়াল করবেন, সেই ফেসিয়াল করার নিয়ম নিয়েই আমাদের আজকের এই আলোচনা।

  • ফেসিয়ালকি?
  • ফেসিয়ালের উপকারিতা
  • ফেসিয়াল করার নিয়ম
  • গোল্ড ফেসিয়াল করার নিয়ম
  • এলোভেরা ফেসিয়াল করার নিয়ম

চলুন আর কথা না বাড়িয়ে বিস্তারিত বিষয় সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

বাড়িতে বসে ফেসিয়াল করার নিয়ম না হয় জানব কিন্তু তার আগে জানতে হবে ফেসিয়াল কি? আর এর উপকারিতা কি?

ফেসিয়াল কি?

আমাদের শরীরকে সতেজ রাখার জন্য দরকার পুষ্টি ঠিক তেমন ভাবেই ফেসিয়াল হল আমাদের মুখমণ্ডলের ত্বকের পুষ্টি। যা আমাদের স্কিনকে টানটান, জৌলুসপূর্ন, লাস্যময়ী রাখতে সাহায্য করে।

ফেসিয়ালের উপকারিতা:

দাগ ও ব্রনোর নিরাময়

ত্বকের অযাচিত দাগ চলে যায়, ত্বকে ব্রনের সমস্যা থাকলে তারও নিরাময় ঘটে ফেসিয়ালের দ্বারা।

নোংরা দূর করে

ফেসিয়ালের ফলে আপনার মুখের মধ্যে জমে থাকা সমস্ত ময়লা দূর হয়।

জৌলুস ফেরায়

লোমকূপের গোঁড়াকে উন্মচিত করে। লোমকূপে জমে থাকা সকল তেল টেনে বার করে। ত্বকের আদ্রতার ভারসম্য বজায় রাখে।

বলিরেখা দূর করে

ফেসিয়ালে ‘এক্সফোলিইয়েশন’ পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়, যার ফলে ত্বকের বলিরেখা নির্মূল হয়।

কোষের জন্ম

ফেসিয়ালের ফলে ত্বকের ভেতরে থাকা মৃত কোষ নির্মূল করে নতুন কোষের জন্ম দেয়।

ফেসিয়াল করার নিয়ম:

বাড়িয়ে বসে জেনে নিন ফেসিয়াল করার নিয়ম।

ক্লিনসিং

ভালো ভাবে মুখ পরিস্কার করা হল ফেসিয়ালের প্রথম পর্যায়।

স্ক্রাবিং

মুখের ভেতর থেকে সকল নোংরা দূর করার জন্য করতে হবে স্ক্রাবিং, যা ফেসিয়ালের দ্বিতীয় পর্যায়।

স্টিমিং

এরপর গরম জলে ভালোভাবে স্টিমিং করা অত্যন্ত জরুরি পর্যায়।

ফেস মাস্ক

এই মাস্ক ত্বকের পুষ্টি যোগায়। তাই স্টিমিং এর পর ফেস মাস্ক অত্যাবশ্যকিয়।

টোনার

ফেসিয়ালের ক্ষেত্রে টোনার খুব আবশ্যকীয় কারন টোনার মুখের ফাঁকা লোমকূপকে ভরাট করতে সাহায্য করে।

ময়শ্চারাইজার ব্যাবহার

ফেসিয়ালের সর্বশেষ পর্যায় হল ময়শ্চারাইজার ব্যাবহার করা। এটি ত্বকে কোমলতা আনে। এক্ষেত্রে বাইরের ক্রিম না ব্যবহার করে তার পরিবর্তে অলিভ ওয়েল, জোজোবা ওয়েল ব্যবহার করতে পারেন ।

বড়িতে গোল্ড ফেসিয়াল করার নিয়ম:

ক্লিনসিং

গোল্ড ফেসিয়াল করার নিয়ম এর প্রথম ধাপ গাদা ফুলের নির্যাসের মধ্যে কাঁচা দুধ মিশিয়ে সেই মিশ্রণটা দিয়ে গোটা মুখে ৩ থেকে ৪ মিনিট ম্যাসাজ করুন। এইভাবে ১০ মিনিট পর মুখ ধুয়ে ফেলুন।

স্ক্রাবিং

একটি পাত্রে ১ চামচ চিনি, ১ চামচ লেবুর রস, ১ চামচ মধু মিশিয়ে ৩০ সেকেন্ড ধরে সার্কুলার মোশনে স্ক্রাব করুন। এরপর ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

স্টিমিং

গরম জল করে সেই পাত্রের উপরে মুখ নিয়ে তোয়াল দিয়ে ঢেকে দিন। যতটা গরম ভাপ নিতে পারবেন ততক্ষন ভাপ নিন।

গোল্ড ফেস প্যাক

১চামচ মধু, ১ চিমটি স্যাফরন, ২ চামচ চন্দন বাঁটা, ১ চামচ টকদই, ১/২ চামচ হলুদ গুঁড়ো, ১ চামচ লেবুর রস, ১ চামচ নারকেল তেল সব একসাথে মিশিয়ে গোল্ড ফেস প্যাক গোটা মুখে লাগিয়ে ২০ থেকে ৩০ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে দিন।

ম্যাসাজ

হালকা হাতে ভালো করে গোটা মুখে ম্যাসাজ করুন যাতে রক্ত চলাচল ঠিক ভাবে হয়।

গোল্ড ফেসিয়াল করার নিয়মের পর আলোচনা করব গোল্ড ফেসিয়ালের উপকারিতা নিয়ে।

গোল্ড ফেসিয়ালের উপকারিতা:

  • বলিরেখা ও দাগছোপ কমায়, ত্বককে টানটান রাখে।
  • ত্বকের শুষ্কতা, রুক্ষতা দূর করে, গোঁড়া থেকে রুক্ষতাকে আটকায়।
  • ত্বকের মধ্যে জ্বালা অনুভূতি হলে সেই জ্বালাভাবের নিরাময় করে, ত্বকে অক্সিজেন সরবরাহ করে।
  • সুর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি আমাদের ত্বকের মেলালিন বাড়িয়ে তোলে, গোল্ড ফেসিয়ালের দ্বারা সেই সমস্যা থেকে মুক্তি ঘটায়।
  • ত্বকের অ্যালার্জি দূর করে।

আরও পড়ুন – ফর্সা হওয়ার সহজ উপায়: ফল পাবেন মাত্র ৭ দিনে

বাড়িতে এলোভেরা ফেসিয়াল করার নিয়ম:

এলোভেরা ফেসিয়াল করার নিয়ম অত্যন্ত সহজ। বাড়িতে থাকা সামগ্রী দিয়ে আপনি এই ফেসিয়াল করতে পারেন।

ক্লিনসিং

বাটিতে ২ চামচ এলোভেরা জেল বা এলোভেরার টুকরো ও ১ চামচ কাঁচা দুধ দিয়ে মুখের মধ্যে সার্কুলার মোশনে ম্যাসাজ করুন, তারপর ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।

স্ক্রাবিং

এলোভেরা জেলের সাথে চালের গুঁড়ো দিয়ে গোটা মুখে স্ক্রাব করে নিন। মাথায় রাখবেন জোরে ঘষবেন না এতে ত্বকের ক্ষতি হয়।

স্টিমিং

একটি পাত্রে গরম জল করে সেই পাত্রের সামনে মুখ নিয়ে তোয়ালে দিয়ে ঢেকে রাখুন। মুখের মধ্যে গরম ভাপ নিন।

ফেস প্যাক

১ চামচ এলোভেরা জেল, ১ চামচ মুলতানি মাটি, ১ চামচ হলুদ গুড়ো, ১ চামচ বেসন নিয়ে প্যাক তৈরি করে গোটা মুখে মাখুন। ২০ মিনিট রেখে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ম্যাসাজ

এলোভেরা ফেসিয়াল করার নিয়ম এর শেষ ধাপ হল গোটা মুখে হালকা ভাবে তেল বা ক্রিম ম্যাসাজ করা।

এলোভেরা ফেসিয়াল করার নিয়ম এর পর জেনে নেব এলোভেরা ফেসিয়ালের উপকারিতা নিয়ে।

এলোভেরা ফেসিয়ালের উপকারিতা:

  • অ্যালোভেরা ফেসিয়াল অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব কমায়।
  • ত্বকের আদ্রর্তা বজায় রাখে।
  • ত্বকের বিবর্ণ ভাব নিরাময় করে।
  • ত্বকের উপর পরা ট্যান দূর করে।
  • ত্বককে শীতল করে।
  • ময়শ্চারাইজ করে গোটা মুখকে।
  • নরম ও কোমল রাখতে সাহায্য করে।
  • মুখের মধ্যে সতেজতা বজায় রাখে।

উপরোক্ত বিষয় থেকে আমরা জেনে নিলাম বাড়িতে বসে ফেসিয়াল করার নিয়ম। এবার আপনি আপনার ত্বককে অতি সহজে উজ্জ্বল ও জৌলুসপূর্ণ করে তুলতে পারবেন। শুধু তাই নয় এলোভেরা ফেসিয়াল করার নিয়ম ও গোল্ড ফেসিয়াল করার নিয়মও এখন আপনার নখদর্পণে। তাই দেরি না করে শ্রীঘই আপনি আমার স্কিনকে ফেসিয়ালের মাধ্যমে এক সুস্থ- সুন্দর জীবন দিন।

Leave a Reply

Top