You are here
Home > Don't Miss > শ্লোক বা উক্তি > এপিজে আব্দুল কালাম এর উক্তি বা বাণী | APJ Abdul Kalam Quotes

এপিজে আব্দুল কালাম এর উক্তি বা বাণী | APJ Abdul Kalam Quotes

আব্দুল কালাম স্যারের উক্তি

এ পি জে আব্দুল কালামের বাণী বা উক্তি, এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ। ভারতের একাদশতম রাষ্ট্রপতি। ভারতের মিসাইল ম্যান বলেও পরিচিত ছিলেন মহাকাশ বিজ্ঞানী তথা ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এ পি জে আবদুল কালাম। ব্যালেস্টিক মিসাইল ও লংচিং টেকনোলজিতে দেশকে আত্মনির্ভর করার পাশাপাশি দেশের অন্তরীক্ষ ও সুরক্ষার বিষয়ে তাঁর অবদান অবিস্মরণীয়। তাঁর পরিচালনার উপর ভিত্তি করেই গড়ে উঠেছিল দেশের প্রথম মিসাইল।ভারতের পারমানবিক শক্তির গবেষণায় আব্দুল কালামের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। Defence Research and Development Organization এর সঙ্গে যুক্ত থাকার পর Indian Space Research Organization-এর সঙ্গেও যুক্ত হন ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ। বিখ্যাত বৈজ্ঞানিকের পাশাপাশি সাহিত্যের অনুরাগীও ছিলেন এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ। সাহিত্য অনুরাগী হওয়ার পাশাপাশি বেশ কিছু বইও লিখেছিলেন তিনি। এপিজে আব্দুল কালাম রচিত উল্লেখযোগ্য কিছু বইয়ের নাম হল Wings of Fire, India 2020, Ignited Minds, Mission of India প্রভৃতি। বিভিন্ন পুরস্কারের পাশাপাশি ১৯৯৭ সালে দেশের সর্বোচ্চ সম্মান ভারত রত্ন সম্মানে ভূষিত করা হয় তাঁকে। এর আগে তাঁকে ভূষিত করা হয় ‘পদ্মভূষণ’ ও ‘পদ্মবিভূষন’ খেতাবেও।তাঁর জীবন সংঘর্ষের কাহিনী থেকে আমরা অনেক কিছু শিখতে পারি। আজকে দেখব সেরকমই এপিজে আব্দুল কালাম রচিত ১০ টি অমর বাণী। যা আমাদের প্রতিপদে সাহায্য করে জীবনযুদ্ধ জয় করে এগিয়ে যেতে।

এপিজে আব্দুল কালাম এর উক্তি বা বাণী:

১. ঘুমিয়ে যেটা দেখেন সেটা স্বপ্ন নয়, বরং যা আপনাকে ঘুমাতে দেয়না সেটাই স্বপ্ন।

এ পি জে আবদুল কালাম

ভারতবর্ষের লাখো লাখো তরুণের কাছে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আব্দুল কালাম ছিলেন স্বপ্নের ফেরিওয়ালা। সকলকে সব সময় স্বপ্ন দেখতে এবং স্বপ্নের পিছনে তাড়া করতে উদ্বুদ্ধ করতেন তিনি। তিনি বিশ্বাস করতেন, স্বপ্ন যারা দেখেন সব সময় সীমা ছাড়িয়ে সেই কাজ সফল করার লক্ষ্যে ছুটে যেতে পারেন তারা। তিনি মনে করতেন, ‘স্বপ্ন দেখতে হবে। কারণ স্বপ্নই চিন্তায় পরিণত হয়। আর সেই চিন্তাই মানুষকে কাজ করতে অনুপ্রাণিত করে।’ তাই এপিজে আব্দুল কালাম বলে গিয়েছেন ঘুমিয়ে যেটা দেখেন সেটা স্বপ্ন নয়, বরং যা আপনাকে ঘুমাতে দেয়না সেটাই স্বপ্ন।

২. স্বপ্ন দেখতে শুরু করলে তবেই স্বপ্ন সত্যি হয়।

এ পি জে আব্দুল কালামের বাণী

ভারতের একাদশতম রাষ্ট্রপতি বিশ্বাস করতেন স্বপ্ন দেখতে শুরু করলে তবেই তা সত্যি হয়। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথোপকথনের সময় একবার তিনি বলেন, ছোট বেলায় তার শিক্ষক শিব সুব্রানিয়াম আয়ার শ্রেণিকক্ষের বোর্ডে একটি পাখি এঁকে তাঁর কাছে জানতে চেয়েছিলেন, পাখির মতো তিনি উড়তে পারবেন কিনা? বিষয়টি তাঁকে খুব নাড়া দেয় বলে জানান এপিজে আব্দুল কালাম। তিনি বলেন, সেজন্যই প্রথম জীবনে পাখির মতো ওড়ার জন্য যুদ্ধ বিমানের পাইলট হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন তিনি। তবে তাঁর সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। স্বপ্ন পূরণ না হলেও দমে যাওয়ার পাত্র ছিলেন না তিনি। আর তাই পাইলট না হয়েও তিনি হন রকেট বিজ্ঞানী।ভারতের প্রথম মহাকাশ যান তৈরিতে মূখ্য ভূমিকা গ্রহণ করেন ভারতের এই প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। আর ওই মহাকাশ যান দিয়েই ১৯৮০ সালে প্রথম ক্ষেপনাস্ত্র রোহিনী উৎক্ষেপণ করে ভারত। এরপর, ১৯৯৮ সালে ভারতের পোখরান-২ পারমানবিক অস্ত্রের পরীক্ষার পিছনেও প্রধান ভূমিকা পালন করেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আবদুল কালাম আজাদ। এটাই ছিল ভারতের প্রথম সফল পারমানবিক পরীক্ষা। আর ওই সময় থেকেই ‘মিসাইল ম্যান’ হিসেবে পরিচিতি পান এপিজে আবদুল কালাম।

৩. জীবনে কষ্ট করে সুখ পেলে তবেই তার মর্যাদা বোঝা যায়।

এ পি জে আবদুল কালাম

ছোট থেকে অনেক কষ্ট করেই বড় হতে হয়েছিল এপিজে আব্দুল কালামকে। জানা যায়, নিজের লেখাপড়া চালানোর জন্য খবরের কাগজ পর্যন্ত বিক্রি করেছেন নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ। তিনি বিশ্বাস করতেন জীবনে কষ্ট করে সুখ পেলে তবেই সেই কষ্টার্জিত সুখের মর্যাদা বোঝা যায়।

আরও পড়ুন – রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেরা ১৩ টি উক্তি | Top 10 Quotes Of Rabindranath Tagore

৪. সকলের জীবনেই দু:খ আসে, এই দু:খের দিনেই আসল ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হয় মানুষকে।

APJ Abdul Kalam Quotes

সকলের জীবনেরই অনিবার্য সঙ্গী হাসি-কান্না, সুখ-দু:খ। জীবনের চলার পথে সুখ যেমন আনন্দকে সঙ্গে করে আসে, ঠিক তেমনই কষ্টে থাকে দু:খের ছোঁয়া। সুখের পাশাপাশি সকলের জীবনেই দু:খ আসে। আর দু:খের দিনে সেই কঠিন সময়েই সকলকে আসল ধৈর্যের পরীক্ষা দিতে হয় বলে বিশ্বাস করতেন এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ।

৫. সমস্যা অতিক্রম করে পাওয়া সফলতার মধ্যেই আছে প্রকৃত আনন্দ।

APJ Abdul Kalam Quotes

মানুষের জীবন ঘটনাবহুল। আর সেই জীবনে প্রতিনিয়ত ভিড় করে আসে নানান রকমের সমস্যা। সমস্যা ছাড়া মানুষের জীবন চলতেই পারেনা। সমস্যা মিটে গেলেই সফলতার স্বাদ পাওয়া যায়। আর এই কথাই বিশ্বাস করতেন ভারতের মিসাইল ম্যান তথা প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আব্দুল কালাম।তিনি মনে করতেন, সমস্যা অতিক্রম করার পর যে সফলতা আসে তার মধ্যেই রয়েছে প্রকৃত আনন্দ।

৬. দেশের সবচেয়ে ভালো মস্তিষ্ক ক্লাসরুমের পিছনের বেঞ্চে পাওয়া যেতে পারে।

APJ Abdul Kalam Quotes

এপিজে আব্দুল কালাম বিশ্বাস করতেন, দেশের সবচেয়ে ভালো মস্তিষ্ক ক্লাসরুমের পিছনের বেঞ্চে পাওয়া যেতে পারে। অর্থাৎ, ক্লাসরুমের সামনের বেঞ্চে যারা বসে তারাই যে সবসময় ভালো স্টুডেন্ট হয় তার কোন মানে নেই। পিছনের বেঞ্চে বসেও যে ভালো স্টুডেন্ট বা শিক্ষার্থী হওয়া যায় সেটাই মনে করতেন তিনি।তিনি মনে করতেন, কোন বেঞ্চ ঠিক করে দেয়না শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার ক্ষমতা বা তাদের level of IQ ।

৭. যেকোনো বিদ্যার্থীকে প্রশ্ন করতে জানতে হবে, এটাই তার সর্বোত্তম গুণ।

এ পি জে আবদুল কালাম

আমরা সকলেই জানি যে, তরুণ সমাজ বা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে খুব সহজে বন্ধুর মত মিশে যেতে পারতেন এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ। তরুণ সমাজের কাছে তিনি আজও তাদের আইডল। তার চিন্তাধারা তার ভাবনা আজও অনুপ্রাণিত করে বহু তরুণ তরুণীকে।এপিজে আব্দুল কালাম মনে করতেন যেকোন বিদ্যার্থী বা শিক্ষার্থীকে প্রশ্ন করতে জানতে হবে। সেইটাই তার সর্বোত্তম গুন বলেও মনে করতেন তিনি।

৮. শিখরে পৌঁছানোর জন্য শক্তির প্রয়োজন, এভারেস্টে হোক বা অন্য কোথাও।

APJ Abdul Kalam Quotes

স্বপ্নের পাশাপাশি মনের শক্তি বা মনের জোরের উপরও অগাধ বিশ্বাস ছিল ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি এপিজে আব্দুল কালামের। তিনি বিশ্বাস করতেন এভারেস্টের চূড়া হোক বা অন্য কোথাও সব জায়গাতেই পৌঁছাতেই অর্থাৎ অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে মনের জোর বা মনের শক্তির প্রয়োজন। আর হয়তো সে কারনেই মনের শক্তির উপর অগাধ বিশ্বাসের জোরেই আর তার মেধা শক্তির উপর বিশ্বাসের জোরেই দারিদ্র পরিবারে জন্মগ্রহণ করেও খ্যাতিমান পরমাণু বিজ্ঞানী হয়ে ওঠেন ভারতের একাদশতম রাষ্ট্রপতি এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ।

৯. আগামী প্রজন্মকে একটা সুন্দর ভবিষ্যৎ দেওয়ার জন্য নিজের বর্তমানকে বিসর্জন দিতে হবে।

এপিজে আব্দুল কালাম এর উক্তি

একাধারে তরুণ প্রজন্মকে যেমন স্বপ্ন দেখতে শিখিয়েছিলেন ঠিক তেমনই তাদের জন্য সুন্দর ভবিষ্যৎ গড়ার লক্ষ্যে অগ্রণী ভূমিকা গ্রহণ করেছিলেন এপিজে আব্দুল কালাম। তিনি একান্তভাবে বিশ্বাস করতেন আগামী প্রজন্মকে একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ দেওয়ার জন্য নিজের বর্তমানকেও প্রয়োজনে বিসর্জন দিতে হবে।

১০. যারা অপেক্ষায় বসে থাকে তারা শুধুমাত্র সেই তলানি টুকুই পায়, যতটুকু চেষ্টার পর থেকে যায়।

এ পি জে আবদুল কালাম

তরুণ প্রজন্মের কাছে স্বপ্নের ফেরিওয়ালা হয়ে ওঠার পাশাপাশি জীবনে কষ্টার্জিত সুখের মর্যাদাও করতেন ভারতের এই প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। তিনি জোর দিতেন কাজ করার উপর। বিশ্বাস করতেন সফলতার অপেক্ষায় বসে থাকলে এমনি এমনি সফলতা আসবেনা। এপিজে আব্দুল কালাম বিশ্বাস করতেন কাজ করে যেতে হবে তাহলেই সফলতা আসবে। তিনি মনে করতেন, যারা অপেক্ষায় বসে থাকে তারা শুধুমাত্র সেই তলানি টুকুই পায়, যতটুকু চেষ্টার পর থেকে যায়। আর তাই হয়তো এই অদম্য সফল হওয়ার ইচ্ছাশক্তি আর না থেমে কাজ করে যাওয়ার এই ইচ্ছার জোরেই পরমাণু বিজ্ঞানী থেকে হয়ে উঠেছিলেন ভারতের একাদশতম রাষ্ট্রপতি।

এ পি জে আব্দুল কালামের বাণী বা উক্তি গুলির ভিডিও দেখুন:

রাষ্ট্রপতির পদ আলোকিত করার পরও তার সহজাত ভঙ্গিমায় অবলীলায় তিনি মিশে যেতে পারতেন সকলের সঙ্গে। মিশে যেতে পারতেন শিক্ষার্থী বা বিদ্যার্থীদের সঙ্গে। তিনি বলতেন প্রাণ খুলে হাসার কথা। তিনি বিশ্বাস করতেন জীবনে হাসতে পারাটা খুব দরকার। কঠিন সময় পার করতে সহায়তা করে হাসি। হাসি জীবনকে সহজ করে বলেও মনে করতেন তিনি। আর তাই হয়তো ওরকম নিষ্পাপ শিশুর মত মন খুলে হাসতে পারতেন তিনি। তরুণ প্রজন্মকে পছন্দ করার পাশাপাশি Women Empowerment বা নারীদের ক্ষমতায়নের কথা বিশ্বাস করতেন এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ। তিনি চাইতেন নারীদের আরও ক্ষমতায়ন হোক। ভারতের পার্লামেন্টসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আরও অধিক সংখ্যক নারীর অংশগ্রহণ প্রয়োজন বলে মনে করতেন তিনি। তিনি মানতেন, যদি অর্ধেক জনগোষ্ঠী অর্থাৎ নারীরা পিছিয়ে থাকেন তাহলে দেশ আর দশের উন্নয়নই পিছিয়ে থাকবে। তিনি মনে করতেন, তাঁর মা তাঁর জীবনে সবচেয়ে প্রেরণাদাত্রী। তাই তরুণদের পাশাপাশি নারীদের ক্ষমতায়নেও জোর দিয়েছিলেন তিনি।একাধারে এপিজে আব্দুল কালাম ছিলেন একজন সুদক্ষ শিক্ষক, বক্তা ও রাষ্ট্র প্রধান। আমরা যে সব মানুষের জীবনী থেকে প্রতিদিনের জীবনযুদ্ধে লড়ে এগিয়ে যেতে সাহস পাই তাঁদের মধ্যে অন্যতম হলেন এপিজে আব্দুল কালাম আজাদ।

এ পি জে আব্দুল কালামের বাণী বা উক্তি গুলির বিশ্লেষণ কেমন লাগলো অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন।

Leave a Reply

Top